মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

নথি

১। নথির নোট সীট এবং পত্রের খসড়া তৈরির সময় বাংলা বানান সঠিক হয়েছে কিনা তা যাচাই করার জন্য বাংলা ডিকশনারি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে: এই ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট শব্দটি সিলেক্ট করে কারসরে রাইট ক্লিক করলে সম্ভাব্য অন্যান্য শব্দগুলো দেখাবে।
২। নথির নম্বর পরিবর্তন করা যায়: এই সুবিধাটি শুধু অফিস এডমিন পাবে। অফিস এডমিন দপ্তর বাটনে ক্লিক করার পর সেটিং-এ “ নথির তথ্য সংশোধন” বাটনে ক্লিক করে নথির শ্রেণি, শাখা কোড, ধরনের কোড, নথি নম্বর এবং নথির সাল পরিবর্তন করা যাবে। তবে নথির প্রথম আট ডিজিট পরিবর্তন করা প্রয়োজন হলে সুপার এডমিনকে (এটুআই) বলতে হবে।
৩। নথি আর্কাইভ: একটি নথির মেয়াদ (নথির নির্ধারিত শ্রেণি অনুযায়ী) উত্তীর্ণের সময়ের একমাস পূর্বেই ব্যবহারকারীকে নোটিফিকেশন দিবে। এই ক্ষেত্রে ব্যবহারকারী অফিস এডমিনের সহয়তায় নথির শ্রেণি পরিবর্তন করতে পারবে। অন্যতায় নির্ধারিত সময়ের পর উক্ত নথিতে আর কাজ করা যাবে না। তখন নথিটি আর্কাইভ করতে হবে। আর্কাইভ করলেও নথিটি দেখা যাবে।
৪। নথির নোটাংশে এবং পত্রাংশে অনুসন্ধান (সার্চ) অপসন: নথির নোটাংশের উপরে নোটের বিষয় দিয়ে সংশ্লিষ্ট নোট এবং পত্রাংশের উপরে পত্রের বিষয় দিয়ে সংশ্লিষ্ট পত্র অনুসন্ধান (সার্চ) করা যায়।
৫। “সকল নথি”-র তালিকা হতে কোন নথিতে ক্লিক করলে ঐ নথির সকল নোটগুলো দেখাবে এবং ঐ তালিকা থেকে কোন নোটের বিষয়ের বিস্তারিত বাটনে ক্লিক করলে সংশ্লিষ্ট নোটটি ওপেন হবে। কিন্তু সকল নোটে ক্লিক করলে সকল নোট ওপেন হবে।
৬। অফিস এডমিন শাখার নাম "English" এ এন্ট্রি করতে পারবে।
৭। দপ্তর অপশনটি ইউজারের সাথে নয় পদের সাথে যুক্ত করা হয়েছে। অথ্যাৎ অফিস এডমিন নিদ্রিষ্ট পদে এসাইন করা হয়। ঐ পদে যাকেই এসাইন করা হবে তিনি এডমিন অপসন পাবে। তবে সুপার এডমিন (এটুআই) কে অনুরোধ করে অফিস এডমিন পরিবর্তন করা যাবে।
৮। কোন ব্যবহারকারীকে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি দেয়ার পর সেই পদবীতে নতুন কোন ব্যবহারকারীকে এসাইন করার সময় সংশ্লিষ্ট পদবীর উপর মাউস রাখলে হোভারে পূর্ববর্তী ব্যবহারকারীর নাম দেখাবে।
৯। আপলোডকৃত ডাক পিডিএফ হলেও পৃষ্ঠাঙ্খন (এন্ডোসমেন্ট) বাটনে ক্লিক করে পৃষ্ঠাঙ্খন করা যাবে।
১০। ডাক আপলোড, নোটসীট এবং খসড়া পত্রের upload কৃত সংযুক্ত ফাইলের সাইজ সর্বোচ্চ 20MB করা হয়েছে।
১১। অফিস এডমিন ১০ ডিজিটের এনআইডি নম্বর দিয়ে আইডি খুলতে পারবে, তবে ইনএক্টিভ অবস্থায় থাকবে । উক্ত আইডি এক্টিভ করার জন্য সুপার এডমিন (এটুআই) কে অনুরোধ করতে হবে।
Android Apps-এর সর্বশেষ আপডেটসমূহ:
১। মোবাইল অ্যাপে ড্যাশবোর্ড মেন্যু যুক্ত করা হয়েছে।
২। ওয়েবের মত মোবাইল অ্যাপেও ‘আপনার জিজ্ঞাসা’ অপশনটি যুক্ত করা হয়েছে।
৩। মোবাইল অ্যাপে আগত ডাক ও প্রেরিত ডাকের তালিকায় ডাকের বিষয় দিয়ে এবং আগত নথি ও প্রেরিত নথি তালিকায় নথি বিষয় দিয়ে অনুসন্ধান (সার্চ) করা যাবে।

                                                                                   নথি এন্ড্রয়েড এবং আইওএস অ্যাপসের সর্বশেষ  আপডেটসমূহ: (নভেম্বর ১৫, ২০১৭)
                               
১) ডাক পাঠানোর সময় অনুলিপি (ট্যাগ করা) দেওয়া যাবে।
২) ব্যবহারকারী একটি ডাক সরাসরি নথিজাত করতে পারবে।
৩) আর্কাইভ যোগ্য ডাক আর্কাইভ করা যাবে।
৪) ব্যবহারকারী নিজ অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তাদের নিকট ডাক প্রেরণের জন্য সিল তৈরি করতে পারবে।
৫) ডাক প্রেরণের জন্য সিন্ধান্ত লেখা যাবে।
৬) ব্যবহারকারী নথি প্রেরণের জন্য অন্য ব্যবহারকারীকে অনুমতি প্রদান করতে পারবে
৭) পত্রের খসড়া সংশোধন করা যাবে।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter